Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

১৯৭০ সালে আজকের দিনেই ইরানের পাস ক্লাবকে হারিয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিল ইস্ট বেঙ্গল

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ফুটবল ইতিহাসে বিদেশি ক্লাবের বিরুদ্ধে ভারতীয় ফুটবল ক্লাবের সাফল্যের তালিকা খুব একটা দীর্ঘ নয়। সেই স্বল্প সাফল্যের মধ্যেই রয়েছে মণিমাণিক্য। ১৯৭০ সালের ২৫শে সেপ্টেম্বর অর্থাৎ আজকের দিনেই ইতিহাস সৃষ্টি করেছিল কলকাতার অন্যতম প্রধান ও সদ্য শতবর্ষ পার করা ইস্ট বেঙ্গল ক্লাব।

১৯৭০ সালের আইএফএ শিল্ডের ফাইনালে প্রবল শক্তিশালী ইরানের পাস ক্লাবকে ১-০ হারিয়ে দেয় লাল হলুদ ব্রিগেড। স্বাধীনতার পর সেই প্রথম কোনও বিদেশি দলকে হারিয়েছিল ভারতীয় ক্লাব। কিংবদন্তি প্রাক্তন ফুটবলার ও প্রবাদপ্রতিম প্রশিক্ষক পি.কে ব্যানার্জীর কোচিংয়ে অসাধ্যসাধন করে দেখিয়েছিলেন লাল হলুদের স্বর্ণযুগের ফুটবলাররা।

পাস ক্লাব

এশিয় ফুটবলের অন্যতম প্রধান শক্তি ইরানের পাস ক্লাবকে সমকালীন সময়ে বিশ্বের সেরা দশটি ক্লাবের মধ্যে গণ্য করা হতো। আইএফএ শিল্ড খেলতে আসবার কয়েক বছর আগেই ইতালীর প্রখ্যাত জুভেন্তাস ও উরুগুয়ের পেনারোলকে হারিয়েছিল ইরানের ক্লাবটি। ১৯৬৭, ১৯৬৮ সালে পরপর দুইবার তেহরান ফুটবল লিগ জেতা পাস ক্লাবে খেলতেন এশিয়ান কাপ জয়ী ইরান জাতীয় দলের বেশ কয়েকজন ফুটবলার। সঙ্গে ছিলেন তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন, ইসরায়েল, মরক্কো, এল সালভাদোরের বিদেশি ফুটবলাররা।

১৯৭০ আইএফএ শিল্ড

আইএফএ শিল্ডের প্রথম তিনটি ম্যাচে দুরন্ত খেলে ৮টি গোল করেছিল পাস ক্লাব। ম্যাচে ইরানের ক্লাবটির আধিপত্য, মাপা ফুটবল ভারতীয় দর্শকদের নজর কাড়ে। ২৫শে সেপ্টেম্বর বহুপ্রতীক্ষিত ফাইনালে ইরানের বিরুদ্ধে মাঠে নামে ইস্ট বেঙ্গল। লাল হলুদ দলে ছিলেন পিটার থঙ্গরাজ, প্রশান্ত সিনহা, মহম্মদ হাবিবের মতো ফুটবলাররা। ইডেন গার্ডেন্সে সেই দিনের ঐতিহাসিক ম্যাচ দেখতে উপস্থিত হয়েছিলেন প্রায় ৮০০০০ দর্শক।

ফলাফল

অতিবড় লাল হলুদ সমর্থকও ইরানের পাস ক্লাবকে হারানোর প্রত্যাশা করেননি। অন্যদিকে ইস্ট বেঙ্গলের ফুটবলাররা চাইছিলেন যাতে দুটির বেশি গোল হজম করতে না হয়। কারণ তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহনবাগান ০-১ ব্যবধানে পাস ক্লাবের কাছে হেরেছিল। মাঠে অবশ্য অন্য চিত্র। মনপ্রাণ দিয়ে লড়েছিলেন লাল হলুদ ফুটবলাররা। আর কথায় আছে – দিনের শেষে জয় পান সাহসীরাই। প্রথমার্ধ গোলশূণ্য থাকবার পর ম্যাচের অন্তিম ৫ মিনিট খেলার জন্যে মহম্মদ হাবিবকে তুলে পরিমল দে’কে নামিয়েছিলেন ইস্ট বেঙ্গল কোচ পি.কে ব্যানার্জী। ম্যাচের একমাত্র গোলটি করে লাল হলুদকে স্মরণীয় জয় এনে দেন সেই পরিমলই। ১-০ ব্যবধানে ফাইনাল জিতে আইএফএ শিল্ড জয়ী হয় ইস্টবেঙ্গল।

Categories