Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনভয় হামলা, ত্রিপুরা পুলিশের হেড কোয়ার্টারে পৌঁছালো তৃণমূল নেতৃত্ব

1 min read

। প্রথম কলকাতা । ।

ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়িতে হামলার বিষয়কে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই সরগরম রাজ্য রাজনীতি। আর এবার ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়িতে হামলার বিষয়টি নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হল তৃণমূল নেতৃত্ব। দলের যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে
ত্রিপুরা পুলিশের হেড কোয়ার্টারে গিয়ে লিখিত অভিযোগ জমা দিল তৃণমূল নেতৃত্ব। প্রসঙ্গত, ঘোষিত কর্মসূচী অনুযায়ী গত সোমবার ত্রিপুরা পৌঁছান তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ত্রিপুরা পৌঁছেই বিভিন্ন জায়গায় বাধার মুখে পড়তে হয় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তাঁকে কালো পতাকা দেখানোর পাশাপাশি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়িতেও লাঠি দিয়ে মারা হয় বলে অভিযোগ। ওঠে গো ব্যাক স্লোগানও।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনভয়ের উপর হামলার অভিযোগে বাংলায় সোচ্চার হয় তৃণমূল কংগ্রেস। বিভিন্ন জায়গায় চলে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ কর্মসূচী। আর এবার এই বিষয়টি নিয়ে ত্রিপুরা পুলিশের দ্বারস্থ হল তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। ত্রিপুরা পুলিশের হেড কোয়ার্টারে গিয়ে লিখিত অভিযোগ জমা দেন তাঁরা। ত্রিপুরা পুলিশের হেড কোয়ার্টার থেকে বেড়িয়ে এই বিষয় দেবাংশু ভট্টাচার্য জানান, ‘অভিযোগ জমা দিয়েছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘যে ঘটনা ঘটেছে। নিন্দনীয় ঘটনা। একদিকে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব বলছেন অতিথি দেব ভব: অন্যদিকে, অতিথিকে স্বাগত জানানো হচ্ছে রড, দান্ডা, কাস্তে, লাঠি, বাঁশ ইত্যাদি দিয়ে।’
তিনি আরও বলেন, ‘ত্রিপুরার সমস্ত শুভ বুদ্ধি সম্পন্ন মানুষ একে ধিক্কার জানিয়েছেন। সরকারের কাজ মানুষের পাশে দাঁড়ানো, মানুষকে চিকিৎসা দেওয়া, কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা, যে যে বিষয়গুলির দিকে সরকারের দেখা দরকার কোনো দিকে সরকার দেখছে না। সরকারের এখন একমাত্র কাজ এবং উদ্দেশ্য বিরোধী দমন কর।’ বলে অভিযোগ জানান তৃণমূল কংগ্রেসের যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য।

একইসঙ্গে তাঁর অভিযোগ, ‘সেদিন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রাণে মারার আসল উদ্দেশ্য ছিল সেইদিন’। বলেও অভিযোগ করেন দেবাংশু। তাঁর মন্তব্য, ‘এখানে যে ঘটনাগুলি ঘটছে তা চলতে দেওয়া যায় না। ত্রিপুরাকে এই জায়গা থেকে মুক্তি দিতে হবে। তার জন্য যা রাজনৈতিক আন্দোলন করার আমরা করবো।’ বলেও জানান দেবাংশু ভট্টাচার্য। তিনি আরও বলেন, ‘পুলিশ প্রশাসনের কাছে আমরা আবেদন করেছি সেদিন পুলিশ প্রশাসন সম্পূর্ণ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছিল। এই ঘটনায় যারা যারা জড়িত তাদের যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তাদের শাস্তি দেওয়া হোক। তাদের গ্রেফতার করা হোক।’ বলেও দাবি জানান দেবাংশু পাশাপাশি ‘কাদের নির্দেশে এই ঘটনা ঘটেছে তাদের প্রত্যেককে আইনের দরজায় দাঁড়িয়ে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। নাহলে আগামী দিনে ত্রিপুরা জুড়ে তৃণমূল কংগ্রেস বৃহত্তর আন্দোলন করবে’ বলেও কার্যত হুঁশিয়ারি দেন তৃণমূল কংগ্রেস যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য। বিপ্লব দেবের সরকারের সামনে মাথা নীচু করা হবে না বলেও জানিয়ে দেন তৃণমূল কংগ্রেস যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ