Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

TOKYO OLYMPIC : সোনার স্বপ্নভঙ্গ ভারতের মহিলা হকি দলের, ব্রোঞ্জ জয়ের আশায় রানীরা

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

১৯৮০, মস্কো অলিম্পিকে শেষবার। তারপর কেটে গিয়েছে দীর্ঘ ৪১ বছর। এবারের টোকিও অলিম্পিকের রানিদের হাত ধরে ইতিহাস তৈরি করেছে ভারতের মহিলা হকি দল।

গ্রুপ লিগে টানা তিন ম্যাচ হেরেছিল সোয়ের্দ মারিনের মেয়েরা। শুধু হারায়নি নিজেদের উপর বিশ্বাস। গ্রুপের শেষ দুটো ম্যাচের একটিতে র‍্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা আয়ারল্যান্ড ও অন্যটিতে দক্ষিন আফ্রিকাকে হারিয়ে বন্দনা, গুরজিতরা খুলে ফেলেছিলেন শেষ আটের দরজা। কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতীয় মহিলা দল মুখোমুখি হয় প্রবল শক্তিধর অষ্ট্রেলিয়ার। অতি বড় সমর্থকও ভাবেননি রানিরা হারিয়ে দেবেন অষ্ট্রেলিয়াকে। রানি, বন্দনা, গুরজিতরা স্বপ্ন দেখার দুঃসাহসটা দেখিয়েছিলেন বলেই তো গুরজিতের একমাত্র গোলে হকিরুদের হারিয়ে জায়গা করে নেন শেষ চারে। সারা দেশ বন্দনা, রানি, সবিতাদের রুপকথায় সঙ্গী হয়।

আজকের শেষ চারে প্রতিপক্ষ আর্জেন্তিনা। মহিলা হকির বিশ্বর‍্যাঙ্কিংয়ে প্রথম তিনে থাকা লাতিন দেশটির বিরুদ্ধে লড়াই কতটা কঠিন তা জেনেই মাঠে নেমেছিলেন রানিরা। এই তো অলিম্পিকের আগেই আর্জেন্তিনা সফর সেরে এসেছে ভারতীয় মহিলা হকি দল। ওই সফরে আর্জেন্তিনার সিনিয়র দলের বিরুদ্ধে তিনটি ম্যাচের একটিতে ড্র বাকি দুটিতে হেরে গিয়েছিলেন বন্দনারা।

অলিম্পিকের শেষ চারে আজ হয়ত নিজেদের জীবনের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি খেলতে নেমেছিলেন ভারতীয় মহিলা হকি দল। শুরুটাও দুর্দান্ত হয়। প্রথম কোয়ার্টার মাত্র ২ মিনিট গড়িয়েছে, তখনই পেনাল্টি কর্ণার থেকে গোল করেন অষ্ট্রেলিয়া ম্যাচের গোলদাতা গুরজিত কউর। ভারত এগিয়ে যায় ১-০। ম্যাচে ফেরার চেষ্টায় ত্রুটি রাখছিল না আর্জেন্তিনাও। লাতিন আক্রমন আছড়ে পড়ছিল ভারতীয় অর্ধে। শুরুতেই গোল পেয়ে রানিরা খানিক রক্ষনের খোলসে ঢুকে পড়েন।

দ্রুতগতির হকিতে মাত্র ১ গোলের লিড যথেষ্ট নিরাপত্তা দিতে পারেনা। হলও তাই, দ্বিতীয় কোয়ার্টারের শুরুতেই পেনাল্টি কর্ণার থেকে গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরান আর্জেন্তেনীয় অধিনায়িকা মারিয়া নোয়েল বারিওনুয়েভো। এবার আক্রমন আসে ভারতের পক্ষ থেকেও। দ্বিতীয় কোয়ার্টারের শেষে দুটো পেনাল্টি কর্ণার আদায় করেন বন্দনারা। গোল আসেনি, ম্যাচের প্রথমার্ধ ১-১ শেষ হয়। এই অর্ধের নিয়ন্ত্রন ছিল আর্জেন্তিনার কাছেই।

তৃতীয় কোয়ার্টারে আক্রমনাত্মক খেলতে দেখা যায় রানিদের। তবে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছিল আর্জেন্তিনার বামপ্রান্ত। একের পর আক্রমন আছড়ে পড়ে ভারতীয় রক্ষনে। চাপ সামলাতে পারেননি সালিমা টেটেরা। পেনাল্টি কর্ণার থেকে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোলটি পেয়ে যান প্র‍তিপক্ষ অধিনায়ক মারিয়া নোয়েল। ভারত পিছিয়ে পড়ে ১-২ ব্যবধানে। আর গোলশোধ করতে পারেনি ভারতীয় মহিলা হকি দল। অবশেষে ২-১ গোলে হার মানতে হয় রানীদের।

ফিল্ড গোলের সুযোগ তৈরী করলেও নভনীতের শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে যায়। পেনাল্টি কর্ণার ও আদায় করে নেন রানিরা। আর্জেন্তিনার অভিজ্ঞ গোলরক্ষক মারিয়া বেলেন দুর্দান্ত সেভ করে সমতা ফেরানোর প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দেন। ক্লান্ত হয়ে পড়ছিলেন ভারতীয় দলের সদস্যরা। আর সমতা ফেরানো হয়নি রানিদের। ব্রোঞ্জের রাস্তা খোলা রইলেও সোনার স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল তাদের।