Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

রাখাল বেরাকে আদালতের অনুমতি ছাড়া গ্রেফতার করা যাবে না, নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ট রাখাল বেরাকে আদালতের অনুমতি ছাড়া আর গ্রেফতার করা যাবে না। এমনটাই আজ নির্দেশ দিলেন বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তী ও বিচারপতি শুভাশীষ দাস গুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ। এই মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ২৬শে অগাস্ট।

প্রসঙ্গত, সেচ দফতরে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগ ওঠায় গত জুন মাসে শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ট রাখাল বেরাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপরই শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ হওয়ায়, ফাঁসানো হয়েছে পেশায় ব্যবসায়ী রাখাল বেরাকে, এই অভিযোগ তুলে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় রাখাল বেরার পরিবার। এরপর সেই মামলায় অভিযুক্ত রাখাল বেরাকে জামিন দেয় কলকাতা হাইকোর্ট। কিন্তু তারপরও জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার আগেই আবারও রাখাল বেরাকে ১৫ই জুনের তমলুকের একটি পুরনো মামলায় গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর মানিকতলা থানার একটি মামলায় রাখাল বেরার জামিন মঞ্জুর করে কলকাতা হাইকোর্ট। পাশাপাশি তাকে অন্য কোনও মামলায় গ্রেফতারের আগে জানাতে হবে আদালতকে, এমনই নির্দেশ দেন বিচারপতি। এরপর আবারও আদালতের সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হয় রাজ্য। এরপর আজ শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ট রাখাল বেরাকে আদালতের অনুমতি ছাড়া আর গ্রেফতার করা যাবে না। এমনটাই নির্দেশ দিলেন বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তী ও বিচারপতি শুভাশীষ দাস গুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ।

পাশাপাশি, কেন সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশের পরেও রাখাল বেরাকে নন্দকুমার থানার পুলিশ গ্রেফতার করলো সেই প্রশ্নও তোলেন বিচারপতিরা। একইসঙ্গে, প্রশ্ন করা হয় ডিভিশন বেঞ্চে মামলার শুনানিতে রাজ্য সরকার কেন জানালো না ? এবং কেন অন্য একটি মামলায় রাখাল চন্দ্র বেরাকে গ্রেফতার করা হলো ? এই সব প্রশ্ন তুলে আগামী ২৬ শে অগাস্টের মধ্যে রাজ্য সরকারের হলফনামা তলব করল কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। আগামী ২৬শে অগাস্ট রয়েছে এই মামলার পরবর্তী শুনানি।

একইসঙ্গে জানা যায়, আজ মামলার শুরুতেই রাজ্যের তরফে আদালতে জানানো হয় যে, গতকাল রাখাল বেরাকে নন্দকুমার যে কেসে গ্রেফতার করা হয়েছে সেই গ্রেফতারি পরোয়ানা তুলে নেবার আবেদন ইতিমধ্যেই নিম্ন আদালতে করেছে রাজ্য। অর্থাৎ গতকালের গ্রেফতারি যোগ্য অপরাধ নয় মেনে নিলো রাজ্য। জানা গিয়েছে, আদালতের নির্দেশ মেনে রাখাল বেরাকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। আগামী ২৬শে অগাস্ট পর্যন্ত রাখাল বেরাকে গ্রেফতার করতে পড়বে না পুলিশ। এমনটাই আজ নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে জানা যায়, আজ বিচারপতিদের প্রশ্নের মুখে বারবারই পড়েন রাজ্যের আইনজীবীরা। বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তী বলেন, গতকাল আপনারা বলেছিলেন ৪টি অভিযোগ তমলুক থানার কেস। কিন্তু আজ জমা দিচ্ছেন নন্দকুমার থানার অভিযোগের ওয়ারেন্ট। কেন বার বার আদালতকে অন্ধকারে রাখা হচ্ছে প্রশ্ন তোলেন বিচারপতি। তখন রাজ্যের তরফে জানানো হয়, কাকতালীয় ভাবে একটা ভুল বোঝাবুঝি থেকে নন্দ কুমার থানা কাল রাখাল বেরাকে গ্রেফতার করেছিল। আজ তিনি জামিনেই মুক্ত হয়েছেন। কোনো বড় অফিসার বা রাজনৈতিক কোনো অভিসন্ধি থেকে এটা হয়নি বলেও আদালতে জানানো হয়। এটা স্থানীয় থানার সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু ভুল। এর জন্য আমরা দুঃখিত, বলেও আদালতে ক্ষমা চেয়ে নেওয়া হয় বলেও জানা যায়। আর তারপরই শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ট রাখাল বেরাকে আদালতের অনুমতি ছাড়া আর গ্রেফতার করা যাবে না। এমনটাই আজ নির্দেশ দেন বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তী ও বিচারপতি শুভাশীষ দাস গুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ। এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে আগামী ২৬শে অগাস্ট।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ