Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

চারে চারে জীবন মিললেও, কোন কারণে ব্যান করা হয়েছিল কিশোর কুমারকে ?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

বর্তমান দিনে রিমিক্স করা গান আমাদের খুবই পছন্দের। আর পছন্দের রিমিক্স করা গানের মধ্যে নব্বই শতাংশ রয়েছে কিশোর কুমারের। কয়েক দশক সুরের জগতে দাপিয়ে বেড়ানো এই গায়কের আজ জন্মদিন। জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছনোর সত্ত্বেও তাঁকে ব্যান করা হয়েছিল। কিশোর কুমারের জীবন কাহিনী আর পাঁচটা সাধারণ মানুষের মত সরল ও প্রাঞ্জল ছিল না।

১৯২৯ খ্রিস্টাব্দে মধ্যপ্রদেশের খান্ডুয়ায় মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন কিশোর কুমার। পিতা কুঞ্জলাল গাঙ্গুলী এবং মাতা গৌরীর দেবীর আশীর্বাদ ও সুরের জাদু নিয়ে সংগীত জগতে শ্রেষ্ঠত্বের শিরোপা লাভ করেন। চার সংখাটি তাঁর জীবনের সাথে অদ্ভুত ভাবে জড়িয়ে রয়েছে। চারে চারে মিলে গেছে তাঁর জীবন। ৪ ঠা আগস্ট ভোর চারটের সময় গায়ক জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন পরিবারের চতুর্থ সন্তান। মোট চারটি চলচ্চিত্রে তিনি অভিনয় করেছিলেন। বিবাহ করেছিলেন চারবার। চার সংখাটি তাই তাঁর জীবনের সাথে আষ্টেপৃষ্টে জড়িয়ে রয়েছে।

বাল্যকাল থেকেই সংগীতের হাতে খড়ি না থাকলেও গলার জাদু দিয়ে তিনি মাতিয়ে তুলেছিলেন সাধারণ জনগণকে । ছোট থেকে কে. এল. সাইগেল ও দাদা অশোক কুমারের গলা নকল করে গান গাওয়ার চেষ্টা করতেন। সংগীতশিল্পী ছাড়াও তিনি ছিলেন অসাধারণ অভিনেতা ,পরিচালক , সুরকার এবং চলচ্চিত্রের রচনাকার।

জন্মেছিলেন আভাস কুমার গাঙ্গুলী নামে। এই নাম থেকে কিশোরকুমার হয়ে ওঠার পথে ছিল অসংখ্য বাঁধা। তাকে ব্যান পর্যন্ত করা হয়েছিল। রাজনৈতিক নেতারা চাপ সৃষ্টি করেছিলেন তাঁর উপর। একসময় সরকার থেকে যোগ্য সম্মানও তিনি পাননি। আয়কররা কিশোর কুমারকে সন্দেহের চোখে দেখতেন। চলচ্চিত্রজগতের পরিচালকগণ তাঁদের গান ও অভিনয় থেকে ব্যান করে দিয়েছিলেন কিশোর কুমারকে। এর কারণ একটাই।, তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর ছোট ছেলে সঞ্জয় গান্ধী কিশোর কুমারকে পার্টির অফিসে গান গাইতে অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু সেটি ছিল বিনা পারিশ্রমিকে । কিশোর কুমার কোনো রাজনৈতিক দলের ঝান্ডা ধরতে চাননি। চেয়েছিলেন শিল্পীর মতো কাজ করে যেতে। তাই তিনি নাকচ করে দিয়েছিলেন সঞ্জয় গান্ধীর প্রস্তাবকে। যদিও এর জন্য পরোক্ষভাবে তাঁকে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছিল।

মাত্র আটান্ন বছর বয়সে হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে এই মহান সংগীতশিল্পী আমাদেরকে ছেড়ে চলে যান। কিন্তু যতদিন তাঁর মনমুগ্ধকর গান আছে , ততদিন তিনি আমাদের হৃদয়ে এবং মননে সমানভাবে বিরাজ করবেন।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ